SSD এবং HDD কি? HDD এবং SSD এর মধ্যে পার্থক্য কি?

হাই এলিয়েন,  আজকে আমরা এই ব্লগ পোস্টের মাধ্যমে জানতে চলেছি, SSD এবং HDD কি(WHAT IS SSD AND HDD?), এছাড়াও জানতে চলেছি এসএসডি(SSD) এবং এইচডিডি(HDD) কাকে বলে।




যখনই আমরা কেউ কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ কিনার চিন্তা করি। ঠিক তখনই, মাথার মধ্যে এসএসডি এবং এইচডিডি এর কথা চলে আসে।

তখন এদের বিষয়ে জানার প্রয়োজন পড়ে। আর বিশ্বাস করুন এই ডিজিটাল যুগে, একটা অফিস বা প্রতিষ্ঠান কম্পিউটার(computer) ছাড়া অচল।

কিন্তু কেনো জানেন? কারণ প্রত্যেকটি প্রতিষ্ঠান চায় দ্রত কাজ করার জন্য। কিন্তু সত্যিই কি মানুষের পক্ষে এত দ্রত কাজ করা সম্ভব? হ্যা সম্ভব নয় বলেই। আজ কম্পিউটারের এত প্রয়োজন।

আর যখন কম্পিউটার(COMPUTER) কে আরও দ্রত করার কথা চিন্তা করা হলেই চলে আসে,

এসএসডি(SSD) এবং এইচডিডি(HDD) এর ভূমিকা।

SSD(Solid State Drive) হলো, HDD(Hard Disk Drive) গুলোর তুলনায় দ্রুত কাজ করার ভূমিকা পালন করে।

আচ্ছা এসএসডি (SSD) এবং এইচডিডি (HDD) এর কাজ কি আলাদা আলাদা?

আসলে, এসএসডি এবং এইচডিডি দুটোরি কাজ একই। এই দুটোই ফাইল বা ডাটা সংরক্ষণ

(Storage)এর কাজ করে।

তারপরেও এদের মধ্যে যথেষ্ট পার্থক্য রয়েছে।

আপনি কি জানেন এসএসডি এবং এইচডিডি কি(You know, what is ssd and hdd)? যদি না যেনে থাকেন তাহলে আজকের এই লেখাটি আপনার জন্য। আশা করি, অনেক কিছু জানতে পারবেন।

এইচডিডি(HDD)কি?

HDD এর পুরো নাম হলো (Hard Disk Drive) যাকে আমরা ছোট করে এইচডিডি(HDD) বলে থাকি। HDD হলো ফাইল সংরক্ষন ড্রাইভ(File Storage)। আর HDD এর প্রধান কাজ হলো ফাইল সংরক্ষন করা।

IBM সর্ব প্রথম ১৯৫৬ সালে HDD বানিয়েছিলো এবং ১৯৬০ সাল থেকে কম্পিউটারের দ্বিতীয় সংরক্ষন (Storage) হিসেবে কম্পিউটারগুলোতে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

বর্তমানে ২০০টির বেশি কোম্পানি HDD বানাচ্ছে। তাদের মধ্যে বেশ কিছু কোম্পানি খুব খ্যাতি অর্জন করেছে যেমনঃ ওয়েস্টার্ন, সিগেট, তোশিবা।

আধুনিক HDD গুলোতে সাধারনত দুটি গঠন(Size) দেখা যায়। ৩.৫ ইঞ্জি এবং ২.৫ ইঞ্চি। ৩.৫ ইঞ্চি ব্যবহার করা হয় ডেস্কটপ কম্পিউটার গুলোতে এবং ২.৫ইঞ্চি সাইজের ড্রাইভ টি ল্যাপটপে ব্যবহার করা হয়। কারণ ডেস্কটপের তুলনায় ল্যাপটপ অনেক ছোট।

HDD ড্রাইভ গুলো বিভিন্ন ভাবে সংযোজিত যেমনঃ ইউএসবি, পাটা, সাটা এবং সিরিয়াল এটাচড ইসসিএসআই দ্বারা সংযুক্ত থাকে।

২০১৩ সালে সারাবিশ্বে Disk Storage এর আয় ছিলো প্রায় $৩২ বিলিয়ন, এটি ২০১২ সাল থেকে ৩% কম ছিলো।

২০১৫ সালের তথ্যমতে, HDD এর প্রধান প্রতিযোগী প্রযুক্তি হলো SSD প্রযুক্তিতে আসা ফ্লাস মেমোরি।

কেনো এসএসডি ব্যবহার করবেন?

Hard Disk Drive এর উপকারিতা হলো, HDD হলো প্রমাণিত প্রযুক্তি।

SSD এর থেকে অনেক ব্যয়বহুল।

HDD অনেক বেশি স্টোরেজ দেয়, SSD এর তুলনায়।

এসএসডি (SSD) কি?

এসএসডি হলো (Solid State Drive).

সর্বপ্রথম ১৯৭৬ সালে DATARAM (SSD) উদ্ভাবন করেন। এবং সেপ্টেম্বর ৮, ২০০৮ সালে SSD বাজারে আশে।

এসএসডি(SSD) হলো, আধুনিক যুগের আধুনিক ভাবে তৈরিকৃত সংরক্ষন ডিভাইস(Storage Device)। যে ডিভাইসের মধ্যে ব্যবহার করা হয় (NAND Flash Memory). যার কারণে SSD গুলো HDD এর থেকে অনেক দ্রুত হয়ে থাকে। এছাড়াও যেকোনো ফাইল (Read, Write, Copy, Paste) এছাড়াও যেকোনো প্রোগ্রাম খুব দ্রুত কাজ করে এইচডিডির থেকে।

এসএসডি(SSD) গুলো অনেক টেকসই হয়। কারণ এগুলোর মধ্যে রয়েছে কুলার এবং কম শক্তি ব্যবহার করে।

কেনো এসএসডি ব্যবহার করবেন?

SSD অনেক দ্রুত লোড নেয়, এবং অনেক সময় বাচায়।

SSD গুলো কম শক্তি ব্যবহার করে। এবং কুলার চালানোর অনুমতি দেয়।

HDD এর চেয়ে SSD গুলো দীর্ঘায়ু হয়ে থাকে।

SSD গুলো পড়া এবং লেখার কাজ দ্রুত করতে পারে।

SSD দিয়ে ফাইল বা ফোল্ডার দ্রুত খোলা যায়।

SSD একটি শান্ত কাজের পরিবেশ তৈরি করে।

SSD গুলো খুব সহজে মাদারবোর্ড স্থাপন করা যায়।

আকারে HDD এড় চেয়ে অনেক ছোট হয়।

SSD গুলোর অনেক কম শব্দ হয়ে থাকে।

এসএসডি এর কিছু অসুবিধা?

HDD এর তুলনায় SSD গুলোর দাম অনেক বেশি হয়ে থাকে।

HDD এর তুলনায় SSD গুলোর জায়গা(Storage space)  কম ।

হারানো ডেটা গুলো, পুনরায় ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয় না।

SSD তে NAND memory flash chips  ব্যবহার করে সীমিত সময়ের জন্য লেখা হয়।

SSD গুলোতে লেখা পড়ার চেয়ে, লেখার গতি অনেক কম HDD এর তুলনায়।

SSD থেকে ভালো রেজাল্ট পাওয়ার জন্য, অপারেটিং সিস্টেম আপডেট থাকতে হবে।

এসএসডি তে ডেটা লেখা এবং মোছার মাধ্যমে SSD এর কার্যকারিতা কমে যায়।

HDD এর তুলনায় SSD গুলোতে বেশি শক্তির প্রয়োজন হয়।

যদিও SSD দ্রুত ডেটা এক্সেস নিতে পারে, তবে সংরক্ষন করতে বেশি সময় নেয়।

আমি কোনটা নিব HDD নাকি SSD?

যখনই প্রশ্ন কম্পিউটার কেনার কথা আসে? তখন প্রশ্ন আসে, HDD নিব নাকি SSD?

তার আগে প্রশ্ন আসে, আপনি কেনো কম্পিউটার টি নিবেন? নিচে কিছু অপশন দেওয়া হলোঃ

১। ভিডিও, অডিও দেখা-শুনা

২। অফিসের কাজ,

৩। গেমস খেলার জন্য

৪। ভিডিও এডিটিং করার জন্য ইত্যাদি।

এখন এই অপশন গুলোর মধ্যে, আপনি কি কাজে কম্পিউটার টি ব্যবহার করবেন। তার উপর নির্ভর করেই কম্পিউটার বা ল্যাপটপের যাবতীয় পার্স কেনা হয়ে থাকে। এবং সর্বশেষে একটি পরিপূর্ন কম্পিউটার তৈরি করা হয়।

১। ভিডিও-অডিও দেখা-শুনা

যদি আপনি ভিডিও দেখা বা অডিও শুনার জন্য কম্পিউটার বা ল্যাপটপ নিতে চান। তাহলে আপনার জন্য HDD ভালো হবে।

কারণ আপনি যদি ভিডিও-অডিও দেখা বা শুনার জন্য HDD কিনে থাকেন তাহলে আপনার কিছু লাভ আছে। যেমন

HARD DISK DRIVE(HDD)কিনলে SSD এর চেয়ে বেশি জায়গা(STORAGE) পাওয়া যাবে।

HDD দিয়ে সাধারণ সফটওয়ার চালালে কোনো প্রকার সমস্যা হয় না।

তাই আপনি যদি, এই ক্যাটাগরির হয়ে থাকেন তাহলে নির্ধিদায় HDD কিনতে পারেন।

২।অফিসের কাজ

অফিসের কাজ বলতে, আমরা সাধারনত Microsoft Word, Microsoft Excel, Microsoft Powerpoint এই ধরনের সফটওয়্যারের কাজ গুলোকে বুঝে থাকি।

আর সত্যি কথা বলতে, এই ধরনের সফটওয়্যার আপনি নির্ধিদায় এইচডিডি দিয়ে চালাতে পারবেন। কোনো প্রকার হ্যাং বা ল্যাং করবে না।

বাংলাদেশে প্রায় অফিস গুলোতে HDD ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

৩।  গেমস খেলার জন্য

গেমস কে না পছন্দ করে, ছোট থেকে বড় প্রায় সবাই গেমস খেলতে পছন্দ করে। আর আপনিও যদি ঠুকঠাক গেম খেলতে চান। তাহলে খুব সহজে HDD দিয়ে আপনিও গেম খেলতে পারবেন।

এখন আপনার প্রশ্ন হতে পারে HDD দিয়ে কি পাবজি(PUBG) বা ফ্রি ফায়ার(FREE-FIRE) খেলা যাবে?

এই ধরনের গেম গুলো অনেক বড় সাইজের হয়ে থাকে। তাছাড়াও এগুলো গেম ৩ডি দিয়ে তৈরি করা হয়ে থাকে।

এই সব গেম খেলার জন্য প্রয়োজন পড়ে, বেশি কোর আর থ্রেডের। এছাড়াও বেশ ভালো একটা গ্রাফিক্স কার্ডের(Graphic Card) প্রয়োজন। এর জন্য আপনাকে SSD ব্যবহার করতে হতে পারে, কারন গেম খেলার জন্য কম্পিউটার কে অনেক দ্রুত হতে হয়। আর একটা ভালো SSD পারে কম্পিউটার টিকে দ্রুত করতে।

HDD দিয়েও এই ধরনের গেমস খেলতে পারেন, তবে অনেক ঝামেলা পোহাতে হবে। অনেক দেরি করে লোড নিবে, কারণ গেমস গুলো অনেক বড় সাইজের হয়ে থাকে।

৪। ভিডিও এডিটিং করার জন্য

আপনি যেহেতু এই লেখাটি পড়ছেন, তাহলে আমার মনে হয় অবশ্যই আপনার ও একটি ইউটিউব চ্যানেল আছে।

আর একজন ভালো ইউটিউবার হওয়ার জন্য, অবশ্যই ভালো ভিডিও এডিটর হওয়া জরুরী।

কেননা একটি ভালো ভিডিও, আপনার চ্যানেলের মূল সম্পদ।

আর ভিডিও এডিটিং করার জন্য, আপনার ভালো একটি কম্পিউটার থাকতে হবে। কেনোনা বর্তমানে বেশির ভাগ ভিডিও এডিটর এডোবি কোম্পানির সফটওয়ার ব্যবহার করে থাকেন। আর সব সময় এডোব কোম্পানির সফটওয়ার গুলোর সাইজ অনেক বেশি হয়ে থাকে অন্যান্য কোম্পানির সফটওয়ার থেকে।

তাই আপনি চাইলেও HDD দিয়ে ভিডিও এডিটিং এর কাজ ভালো ভাবে করতে পারবেন না। তাই এক্ষেত্রে ভালো কোম্পনি গুলোর SSD কেনা উচিৎ।

শেষ কথা

আমরা জানি না, এই লেখাটি আপনার কতটা সাহায্য করেছে। তবে আমরা আশা করতে পারি, যে আপনারা অনেক কিছু জানতে পারলেন।

এই আর্টিকেল সম্পর্কে, যদি আপনার কোনো প্রশ্ন বা মন্তব্য থাকে তো অবশ্যই কমেন্ট বক্সে অথবা সরাসরি আমাদের মেইলে, মেইল করে জানাতে পারেন।

এই রকম আরো আর্টিকেল পেতে আমাদের সাথেই থাকুন। আর অবশ্যই পরিচিত দের সাথে শেয়ার করুন।

ধন্যবাদ।