How to Choose the Best Blogging Platform in 2021 Bangla

আপনি কি ব্লগিং করার জন্য জায়গা খুজছেন? কোথায় ব্লগিং করবেন? কিন্তু খুজে পাচ্ছেন না? আসলেই এটা অনেকটা কঠিন বিষয়।


দিন দিন এত এত প্লাটফর্ম গড়ে উঠছে যে। মানুষ কনফিউজড হয়ে পড়ে। আর ভেবে পায় না কোনটা ছেড়ে কোনটাতে শুরু করবে। তবে চিন্তার কোন বিষয় নেই। আজ আমি সব কিছু খোলসা করে দিব। তারপর যে কেউ সহজেই সঠিক জায়গা নির্বাচন করতে পারবেন।



নিচে ১০ টি ব্লগিং প্লাটফর্মের নাম দেওয়া হলো (Top 10 Blogging Platform in 2021): 

  • 1.        Wordpress.Org
  • 2.        Constant Contact Website Builder
  • 3.        Wix
  • 4.        Gator
  • 5.        Wordpress.com
  • 6.        Blogger
  • 7.        Tumblr
  • 8.        Medium
  • 9.        Squarespace
     10.     Ghost



আপনি যদি ব্লগিং এ নতুন হয়ে থাকেন, তাহলে সমস্যা নেই। ব্লগিং প্লাটফর্ম অনেক সহজে সেট আপ করা যায়। ব্লগিং সাইট যে কেউ সহজে চালাতে পারে কারণ এতে  কোনো কোডিং এবং প্রোগ্রামিং(Coding and programming) এর প্রয়োজন পড়ে না।


আপনাকে শুধু ভাবতে হবে, কি ধরনের ব্লগ সাইট করতে চান।


যখন ব্লগ সাইট টি ধিরে ধিরে বড় হবে, তখন আপনি চাইলে সাইটের ডিজাইন এবং আরো ফিউচার ফাংসান যোগ করতে পারবেন। তারমানে সহজ এবং নমনীয় ব্লগিং নির্বাচন করা খুবই গুরুত্ব পূর্ণ।



WordPress.Org

WordPress.org এটি বিশ্বের সবচেয়ে পপুলার একটি ব্লগিং সফটওয়্যার। ২০০৩ সালে শুরু হয়েছিলো, এখন প্রায় ৩৯% ওয়েবসাইট Wordpress.org দিয়ে চলে।

এই ব্লগিং সফটওয়্যার চালানোর জন্য নিজস্ব হোস্টিং এবং ডোমেইন কিনতে হয়। যদি ব্লগিং এর সকল ফিউচার এর উপর কন্ট্রোল রাখতে চান, তাহলে এটি একটি সেরা অপশন।।


Pros

  • ·         Wordpress.org দিচ্ছে সকল ফিউচার এর উপর নিজের কন্ট্রোল।
  • ·         Worpress.org তে আরো ফিউচার যোগ করতে পারবেন। যেমন Forums, Online store ইত্যাদি। Wordpress.org হচ্ছে ব্লগিং করে আয় করার সেরা উপায়।
  • ·         Wordpress.org তে রয়েছে, হাজার হাজার থিম। যার কারণে সুন্দর সুন্দর ওয়েব সাইট মূহর্তের মধ্যেই তৈরি করা সম্ভব।
  • ·         Wordpress.org তে আরো পাচ্ছেন ৫৮,০০০ এরও বেশি প্লাগিন। এই প্লাগিন এর মাধ্যমে আরো ফিউচার যোগ করতে পারবেন। যেমন Galleries, Contact Forms ইত্যাদি।
  • ·         Wordpress.org হচ্ছে, এসইও(SEO) ফ্রেন্ডলি। তাই খুব সহজে এসইও ফ্রেন্ডলি URLs, Tags, Categories and Posts. এগুলো হলো Wordpress.org এর প্লাস পয়েন্ট।


Cons

  • ·         আপনার সাইটিকে কন্ট্রোল করার জন্য পড়াশোনা করতে হবে।
  • ·         ব্লগ সাইট ম্যানেজ করা, Backup এবং Security দেওয়া নিজের দায়িত্ব।
  • Pricing
  • Wordpress.org একদম ফ্রি। তবে হোস্টিং এবং ডোমেইন কিনতে হবে।
  • তাই আপনি চাইলে এখনি Wordpress.org এ ব্লগিং শুরু করতে পারেন।

 


Constant Contact Website Builder:

Constant contact Website builder একটি আরটিফিসিয়াল ইনটেলিজিয়ান্স ভিত্তিক ব্লগ সাইট বিল্ডার। Constant Contact ফ্রি ব্লগ, বিজনেস ওয়েবসাইট এবং অনলাইন স্টোর তৈরি করার সুযোগ দিচ্ছে, মূহর্তের মধ্যে।

Constant Contact এর রয়েছে, অনেক বড় থিম কালেকশন। এবং খুব সহজেই ওয়েব সাইট তৈরি করার সুযোগ, শুধু মাত্র ড্রাগ এবং ড্রপ করেই খুব সুন্দর সুন্দর ডিজাইন করতে পারবেন।

Constant Contact এ পাবেন অনেক টুলস তারমধ্যে পাচ্ছেন ফ্রি লগো তৈরি করার সু্যোগ এবং ৫,৫০,০০০ এরও বেশি স্টোক ছবি।


Pros

  • ·         খুব সহজেই ড্রাগ এবং ড্রপ করে ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন কোনো প্রকার দক্ষতা ছাড়াই।
  • ·         দ্রুত সেটাপ করতে পারবেন, Constant Contact আপনার ওয়েব সাইট তাদের হোস্টে হোস্ট করবে শুধুমাত্র আপনার জন্য।
  • ·         ফ্রি ৬০ দিন, ব্যবহার করতে পারবেন, ৬০ দিন পর আর তাদের সেবা ফ্রি ব্যবহার করতে পারবেন না।
  • ·         Constant Contact দিচ্ছে ফ্রি SSL Certificate, সকল পেইড সেবাই।


Cons

  • ·        Constant Contact এ খুবিই সীমিত ডেভেলপার থাকার জন্য, তৃতীয় পক্ষের কোনো প্লাগিন পাবেন না Wordpress.org এর মতো।
  • ·         সীমিত পরিমানে অন্তভূক্ত আছে তৃতীয় পক্ষের সেবা গুলো।
  • ·         Constant contact থেকে ফাইল সংরক্ষন করে অন্য প্লাটফর্মে ওয়েবসাইট তৈরি করা খুব কঠিন।


Pricing

Constant Contact দিচ্ছে ৬০ দিনের জন্য তাদের সেবা ফ্রি ব্যবহার করার সুযোগ।

আপনি চাইলে প্রতিমাসে $10 দিয়ে তাদের সেবা ব্যবহার করতে পারবেন। যদি আপনার ডোমেইন না থাকে তাহলে তাদের ফ্রি সাবডোমেইন সাথে SSL Certificate ব্যবহার করতে পারবেন।

Constant Contact ২৪ ঘন্টা সপ্তাহে ৭ দিন মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সাপোর্ট করে থাকেন।

যদি আপনার ব্যবসাটি ছোট হয়ে থাকে, আর যদি Wordpress.org ব্যবহার করতে না চান। তাহলে Constant Contact হতে পারে আপনার ২য় পছন্দ।

 


Wix

Wix হচ্ছে অনেক পপুলার একটি ওয়েব সাইট তৈরি করার প্লাটফর্ম । তাদের ড্রাগ এবং ড্রম ওয়েবসাইট বিল্ডার দিচ্ছে ছোট ব্যবসা করার সুযোগ এবং ওয়েবসাইট  তৈরি করার সুযোগ। আপনি চাইলে ব্লগ যোগ করতে পারেন Wix Blog app এর মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইটে।

Wix প্রতিষ্ঠিত হয় ২০০৬ সালে। এই প্লাটফর্মে যে কেউ তাদের নিজস্ব ওয়েব সাইট তৈরি করতে পারে কোনো প্রকার কোডিং দক্ষতা ছাড়াই। Wix এ বর্তমানে প্রায় ১১০ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করেছে এই বিশ্বের মধ্যে।

 


Pros

  • ·         আপনি চাইলে আপনার সাইটের থিম এবং তৃতীয় পক্ষের সফটওয়ার কাস্টমাইজ করতে পারবেন।
  • ·         ড্রাগ এবং ড্রপ টুলস ব্যবহার করে ওয়েব সাইট তৈরি করতে পারবেন, কোনো প্রকার কোডিং দক্ষতা ছাড়াই।
  • ·         খুব দ্রুত এবং সহজে সেটাপ করা যায়।


Cons

  • ·         ফ্রি একাউন্ট গুলো সীমিত এবং তাদের Wix ব্রান্ড এবং Ads দেখানো ফ্রি একাউন্ট গুলোতে।
  • ·         ফ্রি তৃতীয় পক্ষের এপস সীমিত আকারে ব্যবহার করা যাবে।
  • ·         একটি থিম নির্বাচন করলে সেটি আর পরিবর্তন করা যায় না।
  • ·         ই-কমার্স ফিউচার খুবই সীমিত ফ্রি প্লান গুলোতে। এছাড়াও যেকোনো ফিউচার এর ব্যবহার খুবই সীমিত।

 


Pricing

Wix সাধারনত ফ্রি ওয়েবসাইট বিল্ডার। ফ্রি একাউন্টে ফ্রি সাবডোমেইন পাবেন যেমন https://sitename.wixsite.com/example.

আপনি চাইলে কাস্টম ডোমেইন যোগ করতে পারবেন প্রতিমাসে $4.50।

 


. Gator by HostGator

Gator একটি ওয়েব সাইট বিল্ডার এবং ব্লগিং প্লাটফর্ম। এটি তৈরি করেছে HostGator কোম্পানি। যে কোম্পানি পপুলার ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি নামেও পরিচিত। Gator দিচ্ছে ড্রাগ এবং ড্রপ টুলস, এই টুলস ব্যবহার করে Gator এ অর্ন্তভূক্ত ব্লগ, বিজনেস সাইট এবং অনলাইন স্টোর।

খুবই গুরুত্ব পূর্ন বিষয় হচ্ছে, Gator একটি বিল্ডার Hostgator ওয়েব হোস্টিং এর। আপনি চাইলে Hostgator এর ওয়েব হোস্টিং ব্যবহার করতে পারেন।

যদি আপন Wordpress.org ছাড়াই all-in-one ব্লগিং প্লাটফর্ম খুজছেন সাথে ওয়েব হোস্টিং তাহলে Gator আপনার জন্য সেরা অপশন।


Pros

  • ·         ড্রাগ এবং ড্রপ টুল ব্যবহার করে, সহজে কাস্টমাইজ এবং ওয়েব ডিজাইন করতে পারবেন।
  • ·         দ্রুত সেটাপ করতে পারবেন। কোনো প্রকার টেকনিকাল সমস্যা ছাড়াই
  • ·         ব্যাকাপ, পারফরমেন্স এবং সিকিউরিটি সব কিছুই দেখা শোনা করবে HostGator (কোনো সমস্যা ছাড়াই)।
  • ·         ফ্রি ডোমেইন এবং SSL Certificate থাকছে সকল প্যাকেজে।
  • ·         খুব সহজে অনলাইন স্টোর যোগ করতে পারবেন শুধুমাত্র কয়েকটি ক্লিক করে।


Cons

  • ·         Gator এর কোনো ফ্রি একাউন্ট নেই, কিন্তু তারা দিচ্ছে ৪৫ দিনের টাকা ফেরত গ্যারান্টি।
  • ·         ই-কমার্স ফিউচার সীমাবদ্ধ শুধুমাত্র বড় প্লানের জন্য।
  • ·         সীমিত সফটওয়্যার এবং এক্সটেনশন রয়েছে।


Pricing

 


. WordPress.com

WordPress.com হলো একটি ব্লগিং হোস্টিং কোম্পানি। এই কোম্পানি টি তৈরি করেছিলো Wordpress.org যার সহ প্রতিষ্ঠাতা Matt Mullenweg.

Wordpress.com সাধারন ব্লগ হোস্টিং সেবা ফ্রি দিয়ে থাকে। আপনি চাইলে আরো ফিউচার কিনে নিতে পারেন যেমন কাস্টম ডোমেইন, বেশি স্টোরেজ এবং আরো প্রিমিযাম সেবা।

২০০৫ সালে শুরু করা হয়েছিলো Worpress.ocm, এবং এটি ভালো ব্লগিং প্লাটফ্রম যার কারণে ব্যবহারকারীরা নিজে হোস্টিং কিনতে চায় না।


Pros

  • ·         কোনো সেটাপের প্রয়োজন পড়ে না।
  • ·         খুব সহজে ব্যবহার এবং কন্ট্রোল করা যায়।
  • ·         এটি পুরোটাই ফ্রি, সাথে পাচ্ছেন সাব-ডোমেইন। যার কারণে আপনার সাইটের লিংকটি হবে https://example.wordpress.com


Cons

  • ·         আপনার সাইট টিকে প্রসারিত করার জন্য খুবই সীমিত ফিউচার পাবেন।
  • ·         ব্লগ সাইটে এডভারটিসমেন্ট চালাতে পারবেন না। তবে, Wordpress.com তাদের এড আপনার সাইটে দেখাবে।


Pricing

সাধারনত Wordpress.com এর একাউন্ট ফ্রি, কিন্তু Wordpress.com তাদের এডস এবং ব্রান্ডিং করবে আপনার সাইটে।

আপনি চাইলে আপনার সাইট টিকে প্রসারিত করতে পারবেন কিছু টাকা দিয়ে। এটা হতে পারে মাসিক অথাবা বাৎসরিক।


 

. Blogger

Blogger একটি ফ্রি Google এর  ব্লগিং প্লাটফ্রর্ম। Blogger দিচ্ছে সহজেই নিয়মে এবং কোনো প্রকার টেকনিক্যাল দক্ষতা ছাড়াই ব্লগ সাইটি তৈরি করার সুযোগ।

Blogger অনেক পুরোনো একটি প্লাটফ্রর্ম। এটি চালু হয়েছিলো ১৯৯৯ সালে Pyra Labs এর মাধ্যমে। পরে সেটিকে ২০০৩ সালে, Google এটিকে Blogger নাম করণ করেন এবং নতুন করে ডিজাইন করেন। আর আজ আমরা জানি Blogger একটি Google এর সেবা।

শুধুমাত্র গুগল এর একটি একাউন্ট দিয়েই ফ্রি ব্লগ তৈরি করতে পারবেন Bloger এর মাধ্যমে।

 


Pros

  • ·         ব্লগার একটি ফ্রি ব্লগিং প্লাটফর্ম ।
  • ·         এটি খুব সহজে ব্যবহার এবং কন্ট্রোল করা যায়, কোনো প্রকার টেকনিক্যাল দক্ষতা ছাড়াই।


Cons

  • ·         এখানে পাচ্ছেন সীমিত ব্লগিং টুলস, এবং আপনার ব্লগটিকে প্রসারিত করার জন্য কোনো নতুন টুলস ব্যবহার করতে পারবেন না।
  • ·         সীমিত ডিজাইন এর অপশন পাবেন সাথে কিছু থিম । তৃতীয় পক্ষের থিম গুলো অনেক লো-কোয়ালিটির।
  • ·         Google চাইলে যেকোনো সময়ে আপনার ব্লগটি কে সাসপেন্ড করার ক্ষমতা রাখে।
  • অনেক ব্যবহারকারী ফ্রি বলেই ব্লগার কে নির্বাচন করে কিন্তু পরে তারা Wordpress.org এ ব্লগিং শুরু করে।


Pricing

Blogger পরিপূর্ন ফ্রি সাথে পাচ্ছেন সাব-ডোমেইন। যেমন https://example.blogspot.com যদি আপনি কাস্টম ডোমেইন যোগ করতে চান তাহলে কোনো তৃতীয় কোম্পানী থেকে আলাদা ভাবে কিনে নিতে হবে।

 


. Tumblr

Tumblr একটি অন্যরকম ব্লগিং প্লাটফর্ম অন্যান্য ব্লগিং প্লাটফর্ম থেকে। এখানে অনেকগুলো ব্লগিং প্লাটফর্ম আছে এবং সামাজিক নেটওয়ার্ক এর ফিউচার আছে এখানে।


Pros

  • ·         Tumblr একটি ফ্রি এবং সাথে একটি সাব-ডোমেইন পাচ্ছেন। যেমন https://example.tumblr.com । আপনি চাইলে কাস্টম ডোমেইন কিনে যোগ করতে পারেন।
  • ·         এটি খুব সহজ ব্যবহার এবং সেট আপ করা।
  • ·         এখানে সোসিয়াল মিডিয়া অর্ন্তভূক্ত রয়েছে।
  • ·         এটি Microblogging টুলস অর্ন্তভূক্ত রয়েছে, Tumblr খুব সহজে ব্লগ ভিডিও, GIFs, images এবং অডিও ফরমাট তৈরি করতে পারে।


Cons

  • ·         Tumblr এ রয়েছে সীমিত ফিউচার যার কারনে আপনার ব্লগ টিকে প্রসারিতে এবং এগিয়ে নিয়ে যাওয়া খুব কঠিন একটা বিষয়।
  • ·         তাদের রয়েছে অনেক থিম কিন্তু কোনো আলাদা ফিউচার তারা দিচ্ছে না।
  • ·         Tumblr থেকে সকল ডাটা নিয়ে অন্য কোনো ব্লগ প্লাটফর্ম এ যাওয়া অনেক কঠিন।


Pricing

Tumblr একটি ফ্রি সেবা। আপনি চাইলে কাস্টম ডোমেইন যোগ করতে পারেন। তবে প্রথমে আপনাকে আলাদা ভাবে ডোমেইন টি কিনতে হবে। তারপরেই যোগ করতে পারবেন।

তৃতীয় পক্ষের অনেক থিম এবং এপস রয়েছে কিনে ব্যবহার করার জন্য।

 


. Medium

২০১২ সালে Medium প্রতিষ্ঠা করা হয়, যাতে লেখক দের একটি যোগাযোগ সৃষ্টি হয়। এখানে রয়েছে ব্লগার, সাংবাদিক এবং অনেক দক্ষ মানুষ। এটি খুব সহজ একটি ব্লগিং প্লাটফর্ম এখানে সীমিত সামাজিক নেটওয়ার্কের ফিউচার রয়েছে।

Medium অনেক টা সামাজিক সাইট এর মত, যেখানে আপনি একাউন্ট তৈরি করলেন এবং আপনার লেখা আর্টিকেলটি পাবলিশ করলেন।

যখন আপনি একাউন্ট তৈরি করবেন তখন আপনার প্রফাইল ঠিকানা হবে ঠিক এরকমটা https://medium.com/@yourname. কিন্তু এখানে আপনি কোনো কাস্টম ডোমেইন যোগ করতে পারবেন না


Pros

  • ·         Medium খুব সহজে ব্যবহার করা যায়, এখানো কোনো সেটাপ এবং কোডিং দক্ষতার প্রয়োজন পড়ে না।
  • ·         এটি প্রতাশিত করে, যে আপনার পচ্ছন্দের সাথে কারো পছন্দের মানুষের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করা।
  • ·         এখানে আপনার ফোকাস অনেকটা লেখার উপর আর্কষন করবে।


Cons

  • ·         এখানে অনেক সীমিত ফিউচার রয়েছে তাদের পলিসি অনুযায়ী ডিজাইন এবং ব্রান্ডিং করার জন্য।
  • ·         মিডিয়াম আপনার পাঠকদের নিজের করে নেয়।
  • ·         আপনি কোনো কাস্টম ডোমেইন যোগ করতে পারবেন না। আপনি শুধু একটি সাধারন পেজ পাবেন ফেসবুকের মত এবং তার ঠিকান হবে ঠিক https://medium.com/@yourname.
  • ·         অর্থ উপার্জনের জন্য, এখানে কোনো বিজ্ঞাপন দেখাতে পারবনে না।


Pricing

মিডিয়াম একটি ফ্রি ব্লগিং প্লাটফর্ম।



. Squarespace

Squarespace দিচ্ছে ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করার সুযোগ, এখানে আপনি সুন্দর সুন্দর ওয়েব সাইট তৈরি করতে পারবেন ড্রাগ এবং ড্রপ টুলস ব্যবহার করার মাধ্যমে। এটির প্রধান ফোকাস হচ্ছে যারা ছোট ব্যবস্যা করতে চায়। এবং যারা খুব সহজে অনলাইন স্টোর তৈরি করতে চায়।

এটি ২০০৩ সাতে চালু হয়। Squarespace এর বর্তমানে মিলিয়ন এর চেয়ে বেশি সাইট অনলাইনে চালু আছে।


Pros

  • ·         Squarespace খুব সাধারন এবং সহজে ব্যবহার করা যায় এবং যারা টেকনিক্যাল দক্ষতা ছাড়ায় ব্যবহার করতে চায় তাদের জন্য।
  • ·         এখানে রয়েছে সুন্দর সুন্দর প্রোফেশনার ডিজাইন করা থিম।
  • ·         এটি আলাদা ভাবে দিচ্ছে কাস্টম-ডোমেইন সাথে SSL/HTTPS এবং ই-কমার্স স্টোর তৈর করার সুযোগ।


Cons

  • ·         Squarespace একটি সীমিত ফিউচার সমৃদ্ধ প্লাটফর্ম।
  • ·         লিমিটেড সেবা এবং টুলস অর্ন্তভূক্ত রয়েছে।


Pricing

Squarespace এ রয়েছে বিভিন্ন প্রকার দামের প্যাকেজ ওয়েব সাইট তৈরি করার জন্য।



১০. Ghost

Ghost একটি নূন্যতম ব্লগিং প্লাটফর্ম, তাদের ফিউচার গুলো ফোকাস করে ব্লগ পোস্ট লেখার জন্য। এটি চালু হয় ২০১৩। Ghost এ রয়েছে হোস্টেড প্লাটফর্ম এবং আপনি চাইলে সফটওয়্যার সেটাপ করতে পারবেন অথবা আপনার নিজস্ব হোস্টিং এ হোস্ট করতে পারবেন। তাদের কাছে দুটোই অপশন রয়েছে।


Pros

  • ·         Ghost এর প্রধান উদ্দেশ্য ব্লগিং বা লেখালেখি করা।
  • ·         এখানে রয়েছে পরিস্কার, এবং খুব সাধারন ইন্টারফেস।
  • ·         এটি জাভাস্ক্রিপ্ট দিয়ে লেখা, তাই এটা অনেক দ্রুত।
  • ·         কোন সেটাপ এর প্রয়োজন নেই হোস্টেড ভারসনে।


Cons

  • ·         এপস কাস্টমাইজ করা অনেক কঠিন।
  • ·         এখানে সীমিত অপশন থাকার কারণে দেখতে অনেক সাধারণ।
  • ·         প্রয়োজনীয় থিম না থাকার কারণে এটির কাস্টমাইজ করা যায় না।
  • ·         পুরোটাই সেটাপ আপনার উপর যদি আপনি নিজের জন্য সেটাপ করেন।


Pricing

নিজস্ব হোস্টিং এ সেটাপ করার জন্য কাস্টম-ডোমেইন এবং ওয়েব হোস্টিং এর প্রয়োজন পড়ে। যা আপনাকে টাকা দিয়ে কিনে নিতে হবে।


 

কোথায় ব্লগিং করবেন?

আমরা বিশ্বাস করি যে অন্যান্য ব্লগিং প্লাটফর্ম থেকে Wordpress.org অনেক ভালো সেবা দিয়ে থাকে। আর এটা অনেক শক্তিশালী, সহজেই ব্যবহার করা যায়, অনেক নমনীয় অন্যান্য উপলব্ধ প্লাটফর্ম থেকে।

তাই আমাদের সাজেসন থাকবে, আপনি যদি নতুন হয় থাকেন, তাহলে অবশ্যই Wordpress.org নির্বাচন করুন।



আমাদের শেষ কথা

হ্যালো বন্ধুরা, আপনারা কেমন আছেন। আশা করি ভালো আছেন। কারণ এই মূহর্তে আপনি আমাদের লেখা টি পড়ছেন । জানিনা কত টা সাহায্য করতে পেরেছি। তা কমেন্ট বক্সে জানা তে ভুলবেন না। কারণ আপনার একটা মন্তব্য আমাদের কাছে অনেক কিছু

ধন্যবাদ